বিশ্বকাপের অভিশাপ | ২০২২ বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকেই বাদ পড়ে যাবে ফ্রান্স?

141

বিশ্বকাপের ম্যাচে ছোট দলের কাছে বড় দলগুলোর হেরে যাওয়ার ঘটনা তো নতুন নয়। কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে এখন পর্যন্ত বিশ্বকাপে এমন কিছু ঘটনা ঘটে গেছে যাকে বিশ্বকাপের অভিশাপ বলা যেতে পারে। বলা হয়ে থাকে যে- এই অভিশাপের ফলে এক বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন দল পরের বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্যায়েই বিদায় নেয়। গত ৯৮ এর বিশ্বকাপ থেকেই এই ধারা অব্যাহত আছে। আজকের আর্টিকেলে আমরা বিশ্বকাপের অভিশাপ সম্পর্কে বিস্তারিত জানাবো।

বিশ্বকাপের অভিশাপ – ২০০২

৯৮ এর বিশ্বকাপে স্বাগতিক ফ্রান্স, ব্রাজিলকে ৩-০ গোলে হারিয়ে বিশ্বকাপ জিতে নেয়। বিশ্বকাপের পর তারা ইউরো কাপেও চ্যাম্পিয়ন হয়। জয়ের এই ধারা অব্যাহত রেখেই তারা পরের বিশ্বকাপে অংশ নেয়। ২০০২ বিশ্বকাপেও তারা ছিল ফেভারিট। কিন্তু কেউ কি জানতো কোন অভিশাপ অপেক্ষা করে আছে তাদের জন্য? ২০০২ বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচেই প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ খেলতে আসা আফ্রিকান দেশ সেনেগালের কাছে ১-০ গোলে হেরে যায় ফ্রান্স। এটা ছিল বিশ্বকাপের ইতিহাসে অন্যতম সেরা অঘটন। পরের ম্যাচে অপেক্ষাকৃত দুর্বল দল উরুগুয়ের সাথে ড্র করে তারা। শেষ ম্যাচ ছিল ডেনমার্কের বিরুদ্ধে। দ্বিতীয় রাউন্ডে যাওয়ার জন্য এই ম্যাচে জয় দরকার ছিল। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে তারা ২-০ গোলে হেরে যায়। ফলে গ্রুপ পর্ব থেকেই বাদ হয়ে যায় ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স!

বিশ্বকাপের অভিশাপ – ২০১০

বিশ্বকাপ ২০০৬ এর চ্যাম্পিয়ন ছিল ইতালি। ফাইনাল ম্যাচে ফ্রান্সকে টাই ব্রেকারে হারিয়ে চ্যম্পিয়ন হয়েছিল তারা। অনেকেই ভেবেছিল ২০১০ বিশ্বকাপেও দারুন ভালো করবে তারা। কিন্তু বিশ্বকাপের অভিশাপ অপেক্ষা করছিল তাদের জন্যেও। প্রথম ম্যাচে দক্ষিন আমেরিকান দেশ প্যারাগুয়ের সাথে ১-১ গোলে ড্র করে তারা। পরের ম্যাচ ছিল দূর্বল দল নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে। এই ম্যাচেও ১-১ গোলে ড্র করে ইতালি। শেষ ম্যাচে প্রতিপক্ষ ছিল স্লোভাকিয়া। পরের রাউন্ডে যাওয়ার জন্য এই ম্যাচে জয় ছাড়া অন্য কোন উপায় ছিল না তাদের। কিন্তু তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বীতাপূর্ন এই ম্যাচে তারা ৩-২ গোলে হেরে যায়। ফলে বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকেই বাদ পড়ে যায় ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ইতালি।

বিশ্বকাপের সেই অভিশাপ নিয়ে আমাদের বানানো চিডিও প্রতিবেদনটি দেখুন।

বিশ্বকাপের অভিশাপ – ২০১৪ 

২০১০ বিশ্বকাপে প্রথম বারের মতো চ্যাম্পিয়ন হয় স্পেন। ফাইনালে নেদারল্যান্ডকে ১-০ গোলে হারিয়ে বিশ্বকাপ জিতে নেয় তারা। কিন্তু মজার ব্যাপার হচ্ছে ২০১৪ বিশ্বকাপেও স্পেন এবং নেদারল্যান্ড একই গ্রুপে পড়ে গিয়েছিল। এবং প্রথম ম্যাচেই মুখোমুখি হয় এই দুই দল। কিন্তু এবার ছিল নেদারল্যান্ডের প্রতিশোধ নেওয়ার পালা। গুণে গুণে স্পেনের জালে ৫টি গোল দেয় নেদারল্যান্ড। ৫-১ গোলের অপমানজনক হার নিয়ে মাঠ ছাড়ে স্পেন। পরের ম্যাচে আরও অপমান অপেক্ষা করেছিল তাদের জন্য। চিলির বিরুদ্ধে ২-০ গোলে হেরে মাথা নিচু করে মাঠ ছাড়ে তারা। শেষ ম্যাচে অবশ্য অস্ট্রলিয়ার বিরুদ্ধে ৩-০ গোলে জয় পায় তারা। কিন্তু যা হওয়ার তা হয়ে গেছে। বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নেয় চ্যাম্পিয়ন স্পেন।

বিশ্বকাপের অভিশাপ – ২০১৮

গত বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন ছিল জার্মানি। ফাইনালে আর্জেন্টিনাকে ১-০ গোলে হারিয়ে চতুর্থবারের মত বিশ্বকাপ জিতে নিয়েছিল তারা। এবার বিশ্বকাপ শুরুর আগে ফিফা র‍্যাংকিং এ ১ নম্বরে ছিল জার্মানি। বেশ সহজ একটা গ্রুপেও পড়েছিল তারা। অনেকেই আশা করেছিল এবারের বিশ্বকাপে ফাইনাল পর্যন্ত যাবে জার্মানি। কিন্তু সব ধরনের প্রেডিকশনকে মিথ্যা প্রমানিত করে বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিল তারা। প্রথম ম্যাচেই মেক্সিকোর বিরুদ্ধে ১-০ গোলে হেরে যায় তারা। তবে পরের ম্যাচে সুইডেনের বিপরিতে ২-১ গোলে জিতে বিশ্বকাপের আশা বাঁচিয়ে রেখেছিল তারা। কিন্তু শেষ ম্যাচে দক্ষিন কোরিয়ার সাথে লজ্জাজনকভাবে হেরে যায় তারা। এভাবেই বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নেয় জার্মানি।

কি হবে ২০২২ বিশ্বকাপে?

এবারের বিশ্বকাপে ক্রোয়েশিয়াকে ৪-২ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ফ্রান্স। ফ্রান্সের অধিনায়ক লোরিসের হাতে উঠেছে বিশ্বকাপের ট্রফি। কিন্তু বিশ্বকাপের অভিশাপ অনুযায়ী এক বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন দল পরের বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্ব থেকেই হেরে বিদায় নেয়। তাহলে কি কাতারে অনুষ্ঠিতব্য ২০২২ বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকেই বাদ পড়ে যাবে ফ্রান্স? দেখে যাক বিশ্বকাপের অভিশাপ আসলেই কতটা সত্যি! সময়ই তা বলে দেবে! সে পর্যন্ত আমরা অপেক্ষায় থাকব।

আরও পড়ুন:

কাতারের রহস্যময় ফিল্ম সিটি

মন্তব্য লিখুন